সম্মানিত পাঠক গগন আমরা নিজেরা ভালো থাকার জন্য প্রতি বছরে একবার হলেও ডাক্তারের কাছে যাওয়া হয় শারীরিক পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য আমাদের গাড়ি যেনো ভালোভাবে চলে এসেছে  চাই ভালোভাবে সার্ভিসিং করে নেওয়ার জন্য ঠিক সেই ভাবেই আমাদের ব্যবহার করা ইলেকট্রনিক্স ভাইস গুলো যত্ন নেওয়া হবে দেখতে হবে আমাদের কম্পিউটার গুলো করছে কিনা পুরনো  কম্পিউটার টি ল্যাপটপ  ট্যাবলেট মোবাইল ফোন অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন অনলাইনে দেওয়া হয়েছে কম্পিউটার রাখার মত কিছু পরামর্শ তাই আজ আমি আপনাদের সামনে এসেই পরামর্শগুলো এখানে লিখে দিলাম আপনাদেরকে তাই আপনারা শেষ পর্যন্ত পড়ার চেষ্টা করবেন যাতে করে আপনাদের পুরনো  কম্পিউটার টি আপনার মত করতে পারেন

আমরা সবসময় জরুরি কাগজপত্র গুলো ফাইলগুলো ডেক্সটপে রেখে দেই সেগুলো আপনারা শরীরের ড্রাইভের ভিতর আগুন ফাইল রাখার জন্য আপনার হার্ড ড্রাইভে অনেক অনেক জায়গা রয়েছে আপনি খালি রাখার চেষ্টা করুন দেখবেন কম্পিউটারের কাজের গতি আস্তে আস্তে বেড়ে যাবে

আপনার মোবাইল ফোন আর ডিজিটাল ক্যামেরার কল্যাণে এখন ছবি তোলা হয় অনেক অনেক সেলফি তো আছেই সাথে এসব ছবি রাখার জন্য জায়গা কোথায় ভালো মানের মোবাইলে ক্যামেরা ছবি তুললো এবং কমপক্ষে দুই থেকে তিন মেগাওয়াট জায়গার দরকার হয় আর আপনি যদি আপনার কম্পিউটারে রাখতে চান সেটা তো জানি স্বাভাবিকভাবে ল্যাপটপের জায়গা ভর্তি করবেন কাজ করছে আপনার অসুবিধা হবে আপনি বেচে থাকার চেষ্টা করবেন যেন আপনার ল্যাপটপটি বেশি স্পিডে চলে

সব সময় আমাদের একটি বদঅভ্যাস থেকে যায় সেটা হলো আমাদের যে সফটওয়্যারটি দরকার পড়ে না সেটাই আমরা ইন্সটল করে রেখে দেই আরে বদ দ অভ্যাস মাদেরকে পরিহার করতে হবে যে সফটওয়্যারগুলো আমাদের কাজে না লাগে সেটা আবার আনইন্সটল করে নেব তাহলে আমাদের কম্পিউটার টি রো আরো অনেক গতিশীল হয়ে যাবে

কম্পিউটার মানে এক গাদা তারা ভরা তারা চেষ্টা করতে হবে সবসময় ভাল মাল্টি প্লাগ ব্যবহার করতে হবে যাতে আপনার কম্পিউটারে সঠিকভাবে কারেন্ট প্রবাহ বজায় থাকে পুরনো এবং মাল্টি প্লাগ ব্যবহার করলে আপনার কম্পিউটারের জন্যই ক্ষতিকর হবে আর যদি লোডশেডিং এর সমস্যা থাকে তাহলে আপনার কম্পিউটারের ইউপিএস এর ব্যাকআপ রাখতে পারেন না হলে আপনার মাদারবোর্ড হার্ডডিস্ক চলে যেতে পারে

নিয়মিত আপনার কম্পিউটার সার্ভিসিং করবেন বছরে অন্তত একবার কম্পিউটার সার্ভিসিং করুন অপ্রয়োজনীয় মনে হতে পারে কিন্তু এতে আপনার ল্যাপটপের আয়ু বাড়বে নষ্ট হওয়ার পর ঠিক করানো না করে রাখাটা বেশি কার্যকর চেষ্টা করবেন যেন পরিচিত কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সেবা নিতে এবং এক জায়গা থেকে সব সময় আপনি সার্ভিসিং করাবেন এদের ঠিকঠাকভাবে সার্ভিসিং করার নিশ্চয়তা থাকে আর আপনার কম্পিউটারটি বেশি লাভ হবে

কম্পিউটার  নতুনের  মত করার টিপস নিয়ে এই ছিল আজকের পরামর্শমূলক আলোচনা যদি ভালো লেগে থাকে অবশ্যই শেয়ার করবেন আপনার বন্ধু বান্ধবের সাথে টেকনোলজি  রিলেটেড যে কোন প্রশ্ন থাকলে আমাদেরকে করতে পারেন আমাদের এই ওয়েবসাইটের কমেন্ট বক্সে হাবরা হাবরা সবগুলো প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করব সবাই ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন আমাদের পাশে থাকুন আল্লাহ হাফেজ

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *